আমাদের চুলের জন্য তেল খুব জরুরি, তা সে নারী বা পুরুষ, যে-ই হোক না কেন। বিশেষ করে আসন্ন এই গরমে তেলের আলাপ খুবই প্রাসঙ্গিক। তবে আজ পুরুষের চুলের যত্নে কিছু উপকারী তেল নিয়ে আলোচনা করা যেতে পারে

অ্যাভোকাডো তেল

স্তরপূর্ণ, ভঙ্গুর ও ক্ষতিগ্রস্ত চুলের জন্য এই তেল।। অ্যাভোকাডো তেল হালকা ও মসৃণ এবং এতে রয়েছে প্রচুর পুষ্টি। এ ছাড়া এই তেলে রয়েছে ভিটামিন এ, বি, ডি ও ই। আছে আয়রন, অ্যামাইনো এসিড ও ফলিক এসিড। এই তেল ব্যবহারে চুল পড়া বন্ধ হবে, আগা ভাঙবে না, চুলের গোড়া শক্ত হবে।

নারিকেল তেল

সব ধরনের চুলের জন্যই প্রযোজ্য। চুলের বৃদ্ধি থেকে শুরু করে চুলসংক্রান্ত সব কিছুতেই যেন নারিকেল তেল অপরিহার্য। এই তেল মাথার ত্বককে শুষ্কতা থেকে বাঁচাবে এবং চুলে খুশকি হতে দেবে না।।

জোজোবা তেল

শুষ্ক আর ক্ষতিগ্রস্ত চুলের জন্য বড়ই উপকারী এই তেল। চুলের শুষ্কতা, খুশকি ও জট ছাড়াতে এই তেল খুবই কার্যকরী। নন-স্টিকি ও নন-গ্রেসি এই তেল চুলকে করে মসৃণ ও ঝরঝরে।

আমন্ড তেল

আপনার কাজ যদি হয় সারা দিন পথে পথে ঘুরে বেড়ানো বা এদিক-সেদিক যাওয়া তবে চুলে ব্যবহারের জন্য বেছে নিতে পারেন এই তেল। এটাকে অনেকেই ‘থিনিং অয়েল’ বলে ডাকে। এর কাজ হলো চুলের সব রকম ময়লা ও গাদ দূর করে চুলকে ফুরফুরে ও সতেজ রাখা। এ ছাড়া ভিটামিন ই সমৃদ্ধ এই তেল চুল বাড়াতেও ভূমিকা রাখে।

অলিভ তেল

এই তেল সাধারণত স্পর্শকাতর চুলের জন্য। এতে রয়েছে চুলের উপযুক্ত দারুণ কন্ডিশনার। এর কোনো অ্যালার্জেটিক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। স্কাল্প বা মাথার খুলির স্বাস্থ্যের জন্য এটি বেশ কাজ করে। কেননা এতে আছে অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামাটরি ময়েশ্চারাইজিং।

Related Post





Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*
*