মাহে রমজানের ক্যালেন্ডার সময়সূচি ২০২০ ছবি পিকচার ফটো ডাউনলোড

মাহে রমজানের ক্যালেন্ডার

মাহে রমজানের ক্যালেন্ডার সময়সূচি ২০২০ ছবি পিকচার ফটো image ডাউনলোড

সিরাজগঞ্জ জেলায় সাহরী ও ইফতারের সময়সূচী ২০২০,
সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২০,

রমজানের ক্যালেন্ডার ছবি download, মাহে রমজানের রোজার তালিকা, ইফতার রোজার ক্যালেন্ডার ফটো,রোযার সময়সূচী 2020,রমজান ২০২০ সময়সূচী ছবি,রমজান ক্যালেন্ডার ২০২০ image, www.রমজানের ক্যালেন্ডার ২০২০ পিকচার.com, মাহে রমজান ২০২০ সময়সূচী HD PIC,২০২০ সালে রোজার ক্যালেন্ডার,
সকল জেলার রমজানের ক্যালেন্ডার সময়সূচী গোপালগঞ্জ বাগেরহাট ময়মনসিংহ ,মানিকগঞ্জ টাঙ্গাইল নড়াইল খুলনা, ফরিদপুর শেরপুর মাগুরা ,সিরাজগঞ্জ যশোর রাজবাড়ী সাতক্ষীরা জামালপুর কুষ্টিয়া পাবনা ঝিনাইদহ ,চুয়াডাঙ্গা গাইবান্ধা বগুড়া, নাটোর মেহেরপুর কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট ,রাজশাহী নওগাঁ জয়পুরহাট রংপুর-দিনাজপুর চাঁপাইনবাবগঞ্জ পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁও সাথে মিলিয়ে নিন

মাহে রমজানের ক্যালেন্ডার

বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলার সাথে ঢাকা জেলার সময়ের কিছুটা পার্থক্য আছে। ঢাকার সময়ের সাথে কিছু সময় যোগ বা বিয়োগ করে অন্যান্য কতিপয় জেলার সেহরি ও ইফতারের সময়সূচী পাওয়া যেতে পারে। সেক্ষেত্রে, ঢাকার সময়ের সাথে কত মিনিট যোগ বা বিয়োগ করলে অন্য জেলার সেহরি ও ইফতারের সময় পাওয়া যাবে তা জানতে নিচের ছক দেখুন।

“রমজান এসএমএস শুভেচ্ছা ছন্দ অগ্রিম বাংলা রোজার মেসেজ”এখানে ক্লিক করুন

মাহে রমজানের ক্যালেন্ডার

তারাবিহ নামাজের নিয়ত:
উচ্চারণ: নাওয়াইতুআন উসালি­য়া লিল্লাহি তাআ’লা, রাকাআ’তাই সালাতিত তারাবিহ সুন্নাতু রাসুলিল্লাহি তাআ’লা *** মুতাওয়াযজ্জিহান ইলা যিহাতিল কা’বাতিশ শারিফাতি, আল্লাহু আকবার। (যদি জামাআ’তের সহিত নামাজ হয় তাহলে *** চিহ্নের জায়াগায় ইক্বতাদাইতু বি হাজাল ইমাম বলতে হবে)।

রমজান মাসে এশার নামাজের ৪ রাকাত ফরজ ও ২ রাকাত সুন্নতের পর এবং বিতর নামাজের আগে শুরু হয় তারাবির নামাজ। ২ রাকাত করে ১০ বার তাশাহুদ তথা ১০ বার সালাম ফিরানোর মাধ্যমে ২০ রাকাত তারাবির নামাজ বা তারাবিহ আদায় করতে হয়।

অর্থ: আমি কিবলামুখী হয়ে দুই রাকাআ’ত তারাবিহ সুন্নাত নামাজ আল্লাহর জন্য আদায়ের নিয়্যত করছি, আল্লাহু আকবার। (যদি জামাআ’তের সহিত নামাজ হয় তবে-এই ইমামের ইমামতিতে জামাআ’তের সহিত)।

যাদের আরবী উচ্ছারণ করতে সমস্যা হয় অথবা পড়তে পারেন না। তারা বাংলায় বলবেন ‘আমি কিবলামুখী হয়ে দুই রাকাআ’ত তারাবিহ সুন্নাত নামাজ আল্লাহর জন্য আদায়ের নিয়্যত করছি, আল্লাহু আকবার। এটা বলেই নিয়্যত করতে পারবেন।

তারাবিহ নামাজের ৪ রাকাত পরপর দোয়া:
প্রত্যেক ২ রাকাত পর সালাম ফিরানোর পর ইসতেগফার পড়তে হয়, দুরুদ পড়তে হয়, আল্লাহর স্মরণে জিকির করতে হয়। তারপর চার রাকাত হলেও কুরআন হাদিসের দুআ’গুলো পড়া হয়; যে দোয়াগুলো ৫ ওয়াক্ত নামাজে পড়া হয়। কিন্তু তারাবির যে দোয়াটি বর্তমানে জারি আছে, এই দোয়াটি কোরআন-হাদিস সম্বলিত নয়; এটিও কোনো এক বুজুর্গ ব্যক্তি লিখে এর প্রচলন করেছেন, যার অর্থও ভালো বিধায় আমরা পড়ে থাকি-

দোয়াটি হলো-
উচ্চারণ: সুব্হানাযিল মুলকি ওয়াল মালাকুতি, সুব্হানাযিল ইয্যাতি, ওয়াল আয্মাতি, ওয়াল হাইবাতি, ওয়াল কুদরাতি, ওয়াল কিবরিয়াই, ওয়াল যাবারুত। সুব্হানাল মালিকিল হাইয়্যিল্লাজি লা-ইয়াানামু ওয়ালা ইয়ামুতু আবাদান আবাদা। সুব্বুহুন কুদ্দুছুন রাব্বুনা ওয়া রাব্বুল মালাইকাতি ওয়ার রূহ।

তারাবিহ নামাজের ৪ রাকাত পরপর মোনাজাত :
৪ রাকাত পর পর মোনাজাত করা যায়, আবার একেবারে নামাজ শেষ করেও একবারেই মোনাজাত করা যায়। তারাবিহ নামাজের জন্য নির্দিষ্ট কোনো দোয়া নেই। আমরা সব সময় নামাজের ক্ষেত্রে যে সব দোয়া পড়ে থাকি এগুলো পড়লেই হয়। তারপরও বহু পূর্বে কোনো বুজুর্গ বর্তমানে তারাবিহতে পঠিত দোয়া প্রচলন করেছেন; যার অর্থ ভাল এবং উত্তম বিধায় তারাবির নামাজে এই দোয়াটি পড়া হয়।

দোয়াটি হলো-
উচ্চারণ : আল্লাহুম্মা ইন্না নাসআলুকা জান্নাতা ওয়া নাউ’জুবিকা মিনান্নারী, ইয়া খালিকাল জান্নাতা ওয়ান্নারী, বিরহতিকা ইয়া আজিজু, ইয়া গাফ্ফারু, ইয়া কারীমু, ইয়া সাত্তারু, ইয়া রাহীমু, ইয়া জাব্বারু, ইয়া খালিকু, ইয়া বার্র। আল্লাহুম্মা আযিরনা মিনান্নার; ইয়া মুযিরু, ইয়া মুযিরু, ইয়া মুযির। বিরহমাতিকা ইয়া আর হামার রাহিমিন।

অতঃপর-
আল্লাহুম্মা ইন্নাকা আফুওউন, তুহিব্বুল আফওয়া, ফা’ফু আন্নি।

Related posts