গ্রামীণফোন বাংলালিংক রবি এয়ারটেল সিমে ইমারজেন্সি ইন্টারনেট নেয়ার পদ্ধতি জানার উপায়।

প্রিপেইড ব্যবহারকারীদের জন্য ইমারজেন্সি ব্যাল্যান্স এর ব্যবস্থাটি বেশ কাজের। আর সেই সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে প্রায় সব অপারেটরই আপনাকে ইমারজেন্সি ইন্টারনেট ডেটা নেয়ার সুযোগ দিচ্ছে। পরে রিচার্জের মাধ্যমে এই ডেটা লোনের টাকা ফেরত দিয়ে দেয়া যাবে।

Gp ইমারজেন্সি Data Loan

এক্টিভেশন কোডঃ *১২১*৩১৪১#ডেটার পরিমাণঃ ৩০ এমবিমেয়াদঃ ৩ দিন
ব্যাল্যান্স চেকঃ *১২১*১*৪#
পরিশোধঃ ১০ টাকা
যোগ্যতাঃ মূল অ্যাকাউন্টের ব্যালেন্স ৫ টাকার কম হলে এবং ইন্টারনেট ব্যালেন্স ৫ এমবির কম থাকলে এই লোন নিতে পারবেন

বাংলালিংক ইমারজেন্সি ইন্টারনেট ডাটা
এক্টিভেশন কোডঃ *৮৭৫#
ডাটার পরিমাণঃ গ্রাহকের ব্যবহারের উপর নির্ভরশীল। আপনার স্ট্যাটাস জানতে ডায়াল করুন *৮৭৫*০#
মেয়াদঃ অটো দেয়া হবে
ব্যাল্যান্স চেকঃ *১২৪*৫০০#
পরিশোধঃ প্রাপ্ত ইন্টারনেটের সমপরিমাণ অর্থ
যোগ্যতাঃ মূল অ্যাকাউন্টের ব্যালেন্স ১০ টাকা বা এর কম থাকলে। দিনে সর্বোচ্চ একবার

রবি Robi ইমারজেন্সি ইন্টারনেট ডাটা ধার নেয়ার উপায়
ক্টিভেশন কোডঃ *৮# অথবা *123*003#
ডেটার পরিমাণঃ গ্রাহকের খরচের উপর নির্ভরশীল
মেয়াদঃ অটো পাবেন
ব্যাল্যান্স চেকঃ *৩#
পরিশোধঃ প্রাপ্ত ডেটার পরিমাণের উপর নির্ভর করবে
যোগ্যতাঃ ব্যালেন্স কোনো ব্যাপার না

এয়ারটেল ইমার্জেন্সি ডেটা ধার নেয়ার পদ্ধতি
এক্টিভেশন কোডঃ *১৪১#
ডাটার পরিমাণঃ ৭০ এমবি / ৩০০ এমবি
মেয়াদঃ ৩ দিন
ব্যাল্যান্স চেকঃ *১৪১# অথবা *৩#
পরিশোধঃ ১৪.৪৪ টাকা / ২৫ টাকা
যোগ্যতাঃ ৫ টাকার নিচে থাকতে হবে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *