কবুতরের বয়স জানার উপায়, পালক গননা করে বয়স ‍নির্ণয়

কবুতরের বয়স জানার উপায়

কবুতরের বয়স জানার উপায়

কবুতরের বয়স নির্নয় করা যায় পালক দেখে বয়স গননা করার পদ্বতি। এই পদ্বতি অবলম্বন করে বয়স সম্পর্কে মোটামুটি ধারনা পাওয়া যায়, তবে এক্ষেত্রে কিছুটা কম বেশিও হতে পারে । উন্নত দেশে বায়োকেমিস্ট্রি পদ্বতিতে বয়স গণনা করে,এতে ৯৫% নির্ভুল ফলাফল আসে।

কবুতরের বয়স জানার উপায়

“ভালবাসার ছন্দ, প্রেমের, এসএমএস, sms, মজার ছন্দ মালা ২০২০”

এখানে ক্লিক করুন

উপরের ছবির মতো কবুতরের পাখা মেলে ধরলে, ডানার শীর্ষভাগে যে বড় বড় পালক দেখা যায় সেগুলোকে প্রাইমারি পালক বলে। সাধারনত বাজার থেকে কবুতর কিনে আনার পর এই পালকগুলো বেধে রাখি আমরা, এতে করে কবুতর খুব বেশি উড়তে পারে না। এই প্রাইমারি পালক গুলোকে আমাদের দেশে “পর” বলা হয়। সাধারনত কবুতরের বয়স একমাস হওয়ার পর প্রতি মাসে একটি করে পর পূর্ণতা লাভ করে। কবুতরের বয়স দুই বছর হওয়া পর্যন্ত পরগুলো জন্মায়। তাহলে কোনো কবুতরের পর যদি ছয়টি থাকে তাহলে আমাদের ধরে নিতে হবে কবুতরটির বয়স ৬-৮ মাস। সব কবুতরের কিন্তু পর সমান হয় না। গিরিবাজ কবুতরের হয় ১০টি পর। এছাড়া কবুতরের ঠোট, পা দেখে ও ধারণা করা যায়। তরুন কবুতরের ঠোট, পা গুলো হবে মসৃণ এবং উজ্জ্বল রঙের। বয়স্ক কবুতরের পা, ঠোট সাধারনত রুক্ষ হয়ে যায়। বড় কবুতরের মুখের দুইপাশ চিড়ে যায় বাচ্চাকে ঠোট দিয়ে খাওয়ানোর ফলে। জানার উপায় ডটকম এর সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

কবুতরের বয়স বোঝার উপায়, কবুতরের বয়স জানার উপায় ,কবুতরের বয়স চেনার উপায়,কবুতরের পর গণনা করা, kobutorer boyos janar upay, পালক গননা করে বয়স ‍নির্ণয়

Related posts