মেয়েদের হাসানোর মজাদার কিছু বাংলা জোকস

হাসানোর

মেয়েদের হাসানোর মজাদার কিছু বাংলা জোকস

some funny bengali jokes girls

এক মহিলা বাসে সিট না পেয়ে বললঃ
“যে আমাকে সিটে বসতে দেবেন, তাকে আমি দেখাবো আমার এপেন্ডিসাইটিসের অপারেশানটা কোথায় হয়েছে!

সাথে সাথে একটি ছেলে সরে গিয়ে সিটে জায়গা করে দিল। মহিলাটি জানালার পাশে বসে আছে।

এবার ছেলেটি বললঃ

“এখন দেখান আপনার অপারেশানটি কোথায় হয়েছিল?

বাসটি একটি হাসপাতালের কাছে এলে মহিলাটি সাথে সাথে বলে উঠলঃ

“ঐ তো, ঐ হাসপাতালে হয়েছিল!

গার্ল ফ্রেন্ড বয়ফ্রেন্ড কে বলছেঃ

গার্লফ্রেন্ডঃ তুমি আমাকে কিস করতে পারবেনা।
স্পর্শ করতে পারবেনা
আমাকে কিস করার জন্য জোর করতে পারবানা!
এমনকি কোন কিছুর জন্যই জোর করতে পারবানা!
আর বার বার আই লাভ ইউ শুনতেও আমার ভালো লাগেনা!

বয়ফ্রেন্ডঃ

.

.

.

দিদি বাড়িত যান আপনের বাবা মা চিন্তা করছেন!

আপনি যা চান তা পান না (ভালোবাসা)

আবার যা পান তা উপভোগ করেন না (বিয়ে)

যা উপভোগ করেন তা আবার চিরস্থায়ী নয় (বান্ধবী)

যা চিরস্থায়ী সেটা আবার বিরক্তিকর (বউ)

হাসানোর

দাদা আর দাদী তাদের ৬০ বছর বিবাহবার্ষিকীতে ইচ্ছা হলো, তারা তাদের প্রথম প্রেমের স্মৃতি রোমন্থন করবেন।। তারা প্রথম প্রথম যেভাবে প্রেম করতেন সেভাবে ডেটিং এ যাওয়ার প্ল্যান করলেন!!

তো দাদা সেজেগুজে ফুল নিয়ে পার্কে গিয়ে অপেক্ষা করছিলেন যেখানে তারা আগে দেখা করতেন!! সারাদিন অপেক্ষা করার পরও দাদী এল না।।

দাদা রেগে মেগে বাড়িতে গিয়ে দেখলেন যে দাদী বসে আছে।

দাদা রেগে বললেনঃ “পার্কে আসলে না কেন?”

দাদী লজ্জিত গলায় বললেনঃ “আম্মা বের হতে দেয় নি!

১ম চাপাবাজঃ আমি এত গরম চা খাই যে, কেতলি থেকে সোজা মুখে ঢেলে দেই!

২য় চাপাবাজঃ কি বলিস! আমি তো চা-পাতা, পানি, দুধ, চিনি মুখে দিয়ে চুলোয় বসে পড়ি

ঝন্টু : নারী যদি শক্তির প্রতীক হয়, তবে পুরুষ কীসের প্রতীক?
মন্টু: সহ্যশক্তি!
ঝন্টু : কীভাবে?
মন্টু: নারী যে শক্তি প্রয়োগ করে, পুরুষকে তা সহ্য করতে হয়

মদ পান করতে করতে চিৎকার করে কাঁদছিল বল্টু । এ সময় একজন জিজ্ঞেস করল-
ভদ্রলোক: কী ব্যাপার, কাঁদছ কেন?
বল্টু: যে মেয়েটাকে ভোলার জন্য পান করছি, তার নাম মনে পড়ছে না

Related posts