লজিক গেইট (Logic Gate) কি? লজিক গেইটের প্রকারভেদ

গেইট বলতে আমরা সাধারণত বুঝে থাকি যার মাধ্যমে আসা-যাওয়া করা যায় তাকে। লজিক একটি ইংরেজি শব্দ।
এর অর্থ যুক্তি। সুতরাং যুক্তিনির্ভর যে গেইট তাকে লজিক গেইট বলে।
কম্পিউটারের সকল কাজকর্ম করা হয় বুলিয়ান এ্যালজেবরার গাণিতিক অপারেশনের দ্বারা।
গাণিতিক অপারেশনগুলােকেই লজিক গেইটের মাধ্যমে উপস্থাপন করা হয়।

লজিক গেইট (Logic Gate)
যখন কোন সংখ্যা বা রাশিকে একটি নির্দিষ্ট নিয়মের মাধ্যমে পরিচালনা করা যায়, তখন সেই নিয়মকে লজিক বলা হয়। আর এসব লজিক্যাল নীতির উপর ভিত্তি করে যে সব সার্কিট ডিজাইন করা হয় যার এক বা একাধিক ইনপুট থাকে এবং একটি মাত্র আউটপুট থাকে তাকে লজিক গেইট বলা হয়। এই গেটই মূলত ডিজিটাল সার্কিট। প্রথম প্রজন্মের কম্পিউটারে এ গেইটগুলাে রিলে (Relay) যন্ত্রের সাহায্যে তৈরি করা হতাে। আধুনিক আইসি (ইন্টিগ্রেটেড সার্কিট) প্রযুক্তিতে সব রকম ডিজিটাল গেইট আইসি হিসেবে তৈরি করা হয়।

লজিক গেইটের প্রকারভেদ (Types of Logic  Gates)
লজিক গেইটগুলাে তৈরি করা হয়েছে গাণিতিক অপারেশনের উপর ভিত্তি করে। দশমিক পদ্ধতিতে যেমন যােগ বিয়ােগ গুণ ভাগ ইত্যাদি গাণিতিক অপারেশন আছে, বুলিয়ান এলজেবরায় তা নেই। বুলিয়ান এ্যালজেবরায় গাণিতিক অপারেশনগুলাে সম্পাদন করা হয় মূলত তিনটি গাণিতিক অপারেশনের দ্বারা। এগুলাে হলাে যােগ, গুণ ও পূরক। এছাড়া অন্য সব গাণিতিক অপারেশন সম্পাদন করা হয় উল্লিখিত তিনটি গাণিতিক অপারেশনের সমন্বয়ে বা মিশ্রণে। যেমন বিয়ােগ করা হয় যােগ ও পূরক ব্যবহার করে। এ কারণে লজিক গেইটকে মূলত দুটি ভাগে ভাগ করা যায়। যথা – ১. মৌলিক গেইট ও ২. যৌগিক গেইট

মৌলিক গেইটঃ এ গেইটগুলাে এককভাবে গাণিতিক অপারেশন সম্পাদন করতে পারে। যৌক্তিক যােগ, যৌক্তিক গুণ ও যৌক্তিক পূরকের জন্য তিনটি মৌলিক গেইট আছে। তিন প্রকার মৌলিক গেইটগুলাে হলােঃ
১. অর গেইট (OR Gate): যৌক্তিক যােগের জন্য।
২. এ্যান্ড গেইট (AND Gate): যৌক্তিক গুণের জন্য।
৩. নট গেইট (NOT Gate): যৌক্তিক পূরকের জন্য।

লজিক গেইট

যৌগিক গেইটঃ এ গেইটগুলাে এক বা একাধিক মৌলিক গেইটের সমন্বয়ে তৈরি হয়। তিনটি মৌলিক গেইটের সমন্বয়ে চারটি যৌগিক গেইট ব্যবহার করা হয়। এগুলাে হলােঃ
১. ন্যান্ড গেইট (NAND Gate): AND গেইটের ও NOT গেইটের সমন্বয়ে তৈরি।
২. নর গেইট (NOR Gate): OR গেইটের ও NOT গেইটের সমন্বয়ে তৈরি।
৩. এক্সঅর গেইট (XOR Gate): AND গেইট, NOT গেইট ও OR গেইটের সমন্বয়ে তৈরি।
৪. এক্সনর গেইট (XNOR Gate): XOR গেইটের সাথে NOT গেইট মিলিয়ে তৈরি হয়।

Related posts