সম্প্রতি একটি IAS লাভ-ক্ষতি হিসাব এবং উদ্বৃত্তপত্রে কিছু পরিবর্তন-এর কথা বলেছে। এগুলো কী?

সম্প্রতি একটি IAS লাভ-ক্ষতি হিসাব এবং উদ্বৃত্তপত্রে কিছু পরিবর্তন-এর কথা বলেছে। এগুলো কী? (Recently an international accounting standard has prescribed some changes in income statement and the balance sheet. What are these changes?)

উত্তর: IAS-I আর্থিক বিবরণী (লাভ-ক্ষতি হিসাব এবং উদ্বৃত্তপত্র) তৈরির নিয়মাবলি বা নির্দেশনা দিয়ে সংশোধিতভাবে ১৯৯৮ সালের জুলাই ১ তারিখে প্রয়োগ করা হয়। The Institute of chartered Accountants of Bangladesh কর্তৃক Bangladesh Accounting Standard (BAS) নামে ২০০৭ সালের ১ জানুয়ারি হতে বাংলাদেশে প্রয়োগ করা হয়।
একটি পূর্ণাঙ্গ আর্থিক বিবরণীতে পূর্বে থাকত :

১। জন্ম বিক্রয় হিসাব

“আর পড়ুনঃ” আর্থিক তথ্য সরবরাহের উদ্দেশ্যসমূহ ব্যাখ্যা করুন।

২। লাভ ও ক্ষতি হিসাব

“আর পড়ুনঃ” GAPP কী? রক্ষণশীলতা নীতির মূলভাব কি? উদাহরণসহ ব্যাখ্যা করুন।

৩। উদ্বৃত্তপত্র

পরিবর্তনের পরে যা থাকবে:

“আর পড়ুনঃ” নৈতিকতার সংজ্ঞা দিন। কেন নৈতিকতা ব্যবসায়ে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ?

১। একটি উদ্বৃত্তপত্র

২। একটি আয় বিবরণী

৩। মালিকানা স্বত্ত্ব পরিবর্তন বিবরণী

৪। নগদ প্রবাহ বিবরণী

“আর পড়ুনঃ” মনিটারি ইউনিট Assumption কী? মুদ্রাস্ফীতি কিভাবে মনিটারি ইউনিট Assumption কে প্রভাবিত করে?

৫। প্রয়োজনীয় নোটসমূহ।

সম্পত্তিকে চলতি, অচলতি এবং বিনিয়োগ ভাগ করে দেখাতে হবে। খরচকে বাজারজাতকরণ ব্যয়, অফিস ব্যয়, উৎপাদন বায় ইত্যাদিতে ভাগ করে দেখাতে হবে। সকল দফা, যেমন— সম্পত্তি, দায়, ইক্যুইটি, আয়, ব্যয়, লাভ, ক্ষতিকে সঠিকভাবে সংজ্ঞায়িত করতে হবে। Balance এবং Income statement এ দফাগুলো কিভাবে দেখাতে হবে বর্ণিত রয়েছে।

Related posts